Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড, বিভাগীয় কার্যালয়, রংপুর হতে

প্রদত্ত সেবা সমূহ নিমণরম্নপ:-

ক্রমিক নং

সেবার নাম

সেবার প্রকৃতি

আবেদন প্রক্রিয়া

(ক) শিক্ষাবৃত্তিঃ (কর্মরত ৩য় ও ৪র্থ শেণির সরকারি কর্মচারীর সন্তানদের জন্য প্রতি বছর)

সারাদেশের ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির কর্মরত সরকারি কর্মচারীদের সরকারের রাজস্ব বাজেট থেকে অনধিক দু’সন্তানকে বছরে একবার নির্দিষ্ট হারে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরম নং-১০এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে আবেদন করতে হয়।

(খ) শিক্ষাবৃত্তিঃ (মৃত, অক্ষম ও অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা /কর্মচারীর সমত্মানদের জন্য প্রতি বছর)

কর্মকর্তা-কর্মচারীর চাকরিরত অবস্থায় অক্ষম/মৃত্যুর পরও তাঁর শিক্ষারত ২ সন্তান সর্বোচ্চ ১৫ বছর অথবা অবসরের পর ১০ বছর পর্যমত্ম শিক্ষাবৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারেন।

নির্ধারিত ফরম নং-৩এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে আবেদন করতে হয়।

সাধারণ চিকিৎসা সাহায্যঃঃ

৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির কর্মরত সরকারি কর্মচারীদের নিজ ও পরিবারের সদস্যদের জন্য চিকিৎসা সহায়তা বাবদ বছরে একবার অনুর্ধ্ব ৪,০০০/- টাকা প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরম নং-৯এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে আবেদন করতে হয়।

বিশেষ চিকিৎসা সাহায্যঃ (কর্মরত, মৃত, অক্ষম ও অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা/কর্মচারীর নিজের ও পরিবারের সদস্যদের জন্য প্রতি বছর)

(ক)প্রতি বছর বিশেষ চিকিৎসা সাহায্যের আবেদন নিজের ও পরিবারের নির্ভরশীল সদস্যদের জন্য একসাথে করা যায়। এ জন্য ঢাকা মহনগরের ক্ষেত্রে মহাপরিচালক এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে সংশিস্নষ্ট বিভাগের উপ-পরিচালক এর নিকট আবেদন করতে হয়।

 

(খ)কর্মকর্তা-কর্মচারীর মৃত্যুর পর তাঁর পরিবারের সদস্যগণ সর্বোচ্চ ১৫ বছর অথবা অবসরের পর ১০ বছর পর্যমত্ম বিশেষ চিকিৎসা সাহায্য প্রাপ্তির জন্য আবেদন করতে পারেন।

নির্ধারিত ফরম নং-১এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে আবেদন করতে হয়।

জটিল ও ব্যবহুল রোগের চিকিৎসা সাহায্যঃ (কর্মরত, সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারীর নিজের জন্য)

জটিল ও ব্যয়বহুল রোগের ক্যাটাগরীতে কর্মকর্তা-কর্মচারী নিজে চাকরি জীবনে এক বা একাধিকবার সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা সাহায্য এ খাত হতে প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরম নং-৮এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে ঢাকাস্থ প্রধান কার্যালয়ে আবেদন করতে হবে।

 

ক্রমিক নং

সেবার নাম

সেবার প্রকৃতি

আবেদন প্রক্রিয়া

দাফন/অমেত্ম্যষ্টিক্রিয়া/সৎকার সাহায্যঃ (কল্যাণ তহবিল হতে প্রদেয়)

 

(অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা/কর্মচারী ও তাঁদের পরিবার সদস্যদের মৃত্যুর জন্য)

 

মৃত, অক্ষম/অবসর প্রাপ্ত সরকারি ও ১৯টি স্বায়ত্বশাসিত সংস্থায় কর্মকর্তা/কর্মচারীরগণ কর্মরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলে দাফন/ অন্তেষ্টিক্রিয়া/সৎকারের জন্য ৫০০০/- এবং তাদের উপর নির্ভরশীল পরিবারের সদস্যদের মৃত্যুজনিত কারণেও কল্যাণ তহবিল হতে ৫০০০/- টাকা অনুদান প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরম নং-৫এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে আবেদন করতে হয়।

দাফন/অমেত্ম্যষ্টিক্রিয়া/সৎকার সাহায্যঃ (রাজস্ব  তহবিল হতে প্রদেয়)

(কর্মরত সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারীর নিজ ও পরিবার সদস্যদের মৃত্যুতে)

 

চাকরিরত অবস্থায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর নিজের মৃত্যুর জন্য ২৫ হাজার টাকা  এবং পরিবারের কোন নির্ভরশীল সদস্যদের মৃত্যুতে রাজস্ব তহবিল হতেদাফন/ অন্তেষ্টিক্রিয়া/সৎকারের জন্য ৫ হাজার টাকা এককালীন অর্থ সাহায্য পেতে পারেন।

নির্ধারিত ফরম নং-১১এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে আবেদন করতে হয়।

মাসিক কল্যাণ ভাতাঃ (মৃত, অক্ষম, অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা/কর্মচারীর পরিবারের জন্য সর্বোচ্চ ১৫ বছর পর্যমত্ম)

কোন কর্মকর্তা/কর্মচারী চাকরিরত অবস্থায় অথবা অবসর গ্রহণের পর (অনধিক ১০ বছরের মধ্যে মৃত্যুবরণ করলে তার পরিবারকে এবং কর্মকর্তা/কর্মচারীর দৈহিক বা মানসিক অক্ষমতাজনিত কারণে চাকরি হতে অবসর গ্রহণ কিংবা অপসারিত হবার ক্ষেত্রে সংশিস্নষ্ট কর্মচারীকে ধারাবাহিকতায় প্রতি মাসে সর্বনিমণ  ৪২৫/- এবং সর্বোচ্চ ১০০০/- হারে  সর্বোচ্চ ১৫ বৎসর অথবা সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তা/কর্মচারীর বয়স যে তারিখে ৬৭ বৎসর পূর্ণ হতো/হবে উক্ত তারিখ পর্যমত্ম এতদ্বয়ের মধ্যে যে সময় আগে শেষ হবে সে পর্যমত্ম কল্যাণ ভাতা প্রাপ্ত হবে।

নির্ধারিত ফরম নং-২এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে আবেদন করতে হয়।

যৌথবীমা তহবিল হতে এককালীন সাহায্যঃ (কর্মরত অবস্থায় মৃতুবরণ করলে কর্মকর্তা/কর্মচারীর পরিবারের জন্য)

কোন কর্মকর্তা/কর্মচারী চাকরিরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলে তাঁর মনোনীত ব্যক্তির অবর্তমানে তাঁর ওয়ারিশগণ সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তা/কর্মচারী মাসিক মূল বেতনের ২৪ মাসের সমপরিমান অর্থ অনধিক এক লাখ টাকা এককালীন হিসেবে প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরম নং-৭এ উল্লেখিত নিয়মাবলী যথাযথ অনুসরণ করে আবেদন করতে হয়।